Warning: count(): Parameter must be an array or an object that implements Countable in /home/radiojyo/public_html/wp-content/plugins/dj-profiles/lib/init.php on line 746
গর্বঃ অন্তরের কাঁটা - Radio Jyoti

গর্বঃ অন্তরের কাঁটা

গর্ব একটি কাঁটা। এটি প্রত্যেক মানুষের অন্তরের কাঁটা। উচ্চতর গর্ব আছেঃ যখন আপনি শুধু নিজেকে নিয়েই ভাবেন এবং মনে করেন আপনি অন্য সবার থেকে ভাল। এই ধরণের গর্ব মানুষকে তিক্ত এবং অহংকারী করে তোলে। আবার নিম্নতর গর্বও আছে; যখন আপনি নিজেকে নিকৃষ্ট মনে করেন, মনে করেন আপনাকে দিয়ে কোন কিছুই সম্ভব না; এই ধরণের গর্বের ফলে মানুষ নিরপত্তাহীনতায় ভোগে এবং সব সময় নিজেদের অক্ষমতার কথা বলে। আমি গর্বকে কাঁটা বলি কারণ কাঁটা যেমন মানুষকে আঘাত করে, গর্বও মানুষকে একইভাবে আঘাত করে।

যখন লোকদের মধ্যে উচ্চতর গর্ব দেখা যায় তাদের মধ্যে এক ধরণের অনিরাপদ বোধ লক্ষ্য করা যায় যা তারা আগে কখনও মোকাবিলা করে নি। তারা তাদের এই অনিরাপদ বোধকে বের করে আনে এবং অন্যদেরকে ছোট মনে করে তাদের ‍উপর চাপিয়ে দেয়। এই ধরণের গর্বের ফলে মানুষ রাগী এবং তিক্ত হয়ে পড়ে এবং কঠিন মানুষে পরিণত হয়। গর্ব থেকে নিজেকে মুক্ত করার একটি ভাল উপায় হল নিজেকে নত করা, নিজেকে নিয়ে খুব বেশি চিন্তা না করে অন্যদের নিয়ে চিন্তা করা। লোকদের প্রতি উদার ও দয়ালু হওয়ার উপায় বের করা। লোকদের উপদেশ শোনা এবং সঠিকভাবে কথা বলা নম্রতার অন্তর্ভূক্ত।

নিম্নতর গর্বের ফলাফল একটু ভিন্ন। যখন লোকেদের মধ্যে নিম্নতর গর্ব দেখা যায় তারা অনিরাপত্তায় ভোগে এবং উচ্চতর গর্বের মত অন্যদের উপর চাপিয়ে না দিয়ে, পুরোটাই নিজেরা নিয়ে নেয়। তারা নিজেদের ছোট মনে করে এবং ধারণা হয় তারা কোন কিছুই সঠিকভাবে করতে পারবে না এবং তাদের ধারণাগুলো ভুল। এই ধরণের গর্ব মানুষকে বিষন্ন করে তোলে এবং নিজেদের ছোট ভাবার কারণে তাদের মধ্যে হতাশা চলে আসে। যাদের মধ্যে এই ধরণের গর্ব থাকে তারা খুব নেতিবাচক এবং কঠিন হয়ে পড়ে। এই ধরণের লোকেরা নিজেদের এত নত করে যে তা নম্রতার পরিমাপকেও ছাড়িয়ে যায়।

নিজের সম্পর্কে নিচু ধারণা পোষণ করা মানে নম্রতা না, এর মানে নিজেকে নিয়ে কম চিন্তা করা। এর মানে আপনি নিজেকে কি মনে করেন তা না, বরং আপনি নিজেকে নিয়ে কতটুকু চিন্তা করেন সেটা। উচ্চতর গর্ব হল নিজেকে নিয়ে খুব বেশি চিন্তা করা আর নিম্নতর গর্ব হল নিজেকে ক্ষুদ্র মনে করা। উভয় ক্ষেত্রেই মানুষ নিজের উপর বেশি আলোকপাত করে। তাদের নম্র হতে হবে এবং অন্যদের নিয়ে বেশি চিন্তা করতে হবে। চিমটা দিয়ে অন্তরের কাঁটা তুলে ফেলতে হবে।

Josy L

You may also like...